• শিরোনাম

    উকিল ছাড়াই উদ্বাস্তু হওয়া সম্ভব

    CNDA-তে প্রতিষ্ঠিত উকিলদের সাফল্যের হার কম

    ফারুক নওয়াজ | শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ | পড়া হয়েছে 795 বার

    CNDA-তে প্রতিষ্ঠিত উকিলদের সাফল্যের হার কম

    অনেকেই জানতে চান CNDA তে রাজনৈতিক আশ্রয় আবেদন কোন ধরনে উকিল দিয়ে করালে ভাল হয় অথবা কোন উকিলের মামলা পাওয়ার হার কেমন।

    আমাদের পাঠকদের কথা বিবেচনা করে আমরা একটি জরিপ চালিয়েছি। সে জরিপে উঠে এসেছে কোন উকিলের মামলা জেতার হার কেমন এবং সরকারী আর্থিক সহায়তার উকিলের (Aide Juridictionnelle) মাধ্যমে মামলা পাওয়ার হার কেমন। পাশাপাশি উকিলের আদৌ কোন প্রয়োজন বা ভুমিকা রয়েছে কিনা এসব তথ্য।

    সম্মানিত পাঠকদের কথা বিবেচনা করে আমরা এসব তথ্য উপাত্ত তুলে ধরলাম।

    CNDA  বা প্রচলিত বাংলায় কমিশনে একজন রাজনৈতিক আশ্রয় আবেদনকারীর OFPRA তে করা আবেদন না-মঞ্জুর হলে সেটি বিবেচনার জন্য আপীল করাকেই বোঝায়। সহজ ভাষায় OFPRA যখন একজন আবেদনকারীর আবেদন না মঞ্জুর করে সেটি বাতিল করার জন্য CNDA তে আবেদন করা হয়। অর্থাৎ OFPRA যে সিদ্ধান্ত দিয়েছে সেটি বাতিল করার জন্যই কমিশনে আবেদন করা হয়।

    আমরা কমিশনে একদিনের শুনানী এবং কতোটি আবেদন গৃহীত হলো তার একটি খসড়া উপাত্ত দেয়ার চেষ্টা করবো। এরপর আমরা আলোচনা কোন উকিলের জেতার হার বেশী। সবশেষে আমরা জানাবো উকিলের আদৌও কোন প্রয়োজন আছে কিনা।

    গত ৪ সেপ্টেম্বর কমিশনে মোট ২৮ টি কক্ষে একাধিক শুনানী অনুষ্ঠিত হয়েছিলো।শুনানীর দিনে ১ এবং ২২ নম্বর কক্ষে ২৬ জনের সকলের শুনানী বাতিল করা হয়েছিলো।এর পাশাপাশি কক্ষ নম্বর ৩, ৯, ১১, ১২, ১৩, ১৬, ২১, ২২ এবং D ও F কক্ষে কোন শুনানী হয়নি। সেদিনের ১৩ টি কক্ষের শুনানীতে সর্বমোট ২১৬ জন অংশ নেন। যার মধ্যে ৩০ জন উদ্বাস্তু মর্যাদা (Statut de Refugié) পেয়েছেন। ৩২ জন সাময়িক সুরক্ষা (Protection Subsidiaire) পেয়েছেন। ১১০ জনের আবেদন প্রত্যাখ্যান (Rejet de Recours) করা হয়েছে। ৪৩ জনের কোন কারন বশত: শুনানী হয়নি জন্য পুনরায় আবেদন ফেরত পাঠানো হয়েছে (Dossier Renvoyé)। ০১ জন আবেদন নিজে থেকে প্রত্যাহার করেছেন (Désistement)।

    শুনানীতে অংশ নেয়ার মধ্যে ১৩ দশমিক ৮৮ শতাংশ উদ্বাস্তু মর্যাদা (Statut de Refugié) পেয়েছেন।১৪ দশমিক ৮১ শতাংশ সাময়িক সুরক্ষা (Protection Subsidiaire) পেয়েছেন।৫০ দশমিক ৯২ শতাংশের আবেদন প্রত্যাখ্যান (Rejet de Recours) করা হয়েছে।এবং ১৯ দশমিক ৯ শতাংশের শুনানী হয়নি জন্য পুনরায় আবেদন ফেরত পাঠানো হয়েছে (Dossier Renvoyé)।

    আমাদের বাংলাদেশীদের মাঝে পরিচিত যে সব উকিল রয়েছেন তাদের মামলায় জেতার হার অনেক কম। বাঙরাদেশদের মাঝে পরিচিত PIQUOIS এর সে তারিখে তিনটি মামলা লড়ার কথা থাকলেও তিনি সেদিন সব মামলা ফেরত পাঠিয়েছিলেন। সে হিসেবে উনার সাফল্যের হার মোটাদাগে শুন্য বলা যেতে পারে। মামলার ফাইল ফেরত পাঠানোর জন্য আবেদনকারীরা আরো কিছুদিন সময় হাতে পেলেন। এতে করে উনাদের সরকারী অর্থ সহায়তার সম্ভাবনা কিছুদিন থাকলো। অবশ্য উনারা মামলা পেলে সেটা অন্য হিসাব।

    অপর এক পরিচিত উকিল TAELMAN চারটি মামলা লড়ার কথা থাকলেও উনি তিনটি ফাইল ফেরত পাঠান এবং একটিতে হেরে যান। অর্থাৎ উনার সাফল্যের হার শুন্যের নীচে।

    বাংলাদেশীদের মাঝে পরিচিত GASMI, DOOKHY এবং DEMIR সেদিন কোন মামলায় জিতেননি। অপরদিকে EL AMINE একটি মামলায় মক্কেলের জন্য Protection Subsidiaire পেয়েছেন।

    বিভিন্ন জরিপে দেখা গেছে বাংলাদেশীদের মাঝে সুপরিচিত উকিলের একটা বড় অংশ হেরে যাচ্ছেন। এর ফল হিসেবে বলা যায় আবেদনকারী যে গল্প সাজিয়েছেন তার ভিত্তি দুর্বল এবং প্রতিষ্ঠিত উকিল হওয়ার জন্য উনারা সে সব আবেদনকারীর জন্য যথেষ্ট শ্রম দেননি।

    বাস্তবিক অর্থে রাজনৈতিক আশ্রয় পাওয়ার ক্ষেত্রে উকিলের কোন ভুমিকা থাকে না।গল্পের ভিত্তি মজবুত এবং উপস্থাপনা সঠিক হলে একজন অনায়াসেই উদ্বাস্তু মর্যাদা পেতে পারেন।

    তাই অহেতুক উকিলের পিছনে কষ্টার্জিত ইউরো খরচ না করে সরকারী সহায়তার বিনামুল্যের উকিল দিয়ে লড়াই করাই যুক্তিযুক্ত। তবে এক্ষেত্রে দালালের সহায়তা ছাড়া নিজে থেকে Aide Juridictionnelle এর আবেদন করলে ভাল হবে।

    বাংলাদেশ সময়: ৫:২১ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

    eurobarta24.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ